দেশ

দেশ

বাঘা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন : প্রচারে সম্ভাব্য প্রার্থীরা

তফসীল ঘোষণা হওয়ার আগেই নির্বাচনী প্রচারে নেমে পড়েছেন রাজশাহীর বাঘা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের সম্ভাব্য প্রার্থীরা। আগামী ২৫ মে অনুষ্ঠিত নির্বাচন উপলক্ষে এ উপজেলায় এখন পর্যন্ত জামাত-বিএনপির কেউ প্রচারে না নামলেও আওয়ামী লীগের সাতজন চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঘোষণা দিয়েছেন। এদের মধ্যে নতুন প্রার্থী হিসেবে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছেন বাঘা উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক ও বাঘা পৌরসভার সাবেক প্যানেল মেয়র শাহিনুর রহমান পিন্টু। ভোটার ও প্রার্থীদের মাঝে তার নামটা জোরেশোরে আলোচনায় উঠে আসছে।

এ উপজেলায় আসন্ন নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দিতার জন্য বর্তমান চেয়ারম্যান ও রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক অ্যাডভোকেট লায়েব উদ্দিন লাভলু ছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে আছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুল, উপজেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ সম্পাদক (সাবেক) সুজিত কুমার পান্ডে বাকু, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান (মহিলা) ফাতেমা খাতুন লতা।

এছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে সম্ভাব্য প্রার্থিতার নাম আসছে বাঘা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি ও চকরাজাপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আজিজুল আযম, বাঘা উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান, জাতীয় সমাজ তান্ত্রিক দল (জাসদ ইনু)’র জেলা কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমিটির সাবেক কমান্ডার, বাজুবাঘা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এবং জাতীয় সমাজ তান্ত্রিক দল জাসদ কেন্দ্রীয় কার্যকরি কমিটির সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিউর রহমান শফি। তবে এদের কেউ এখনও প্রচারে নেই।

এদিকে আসন্ন নির্বাচনে প্রার্থিতা নিয়ে এ জনপদের রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতামত, ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ এবার তাদের দলীয় প্রার্থী না দেওয়ায় প্রার্থীদের নিজস্ব জনপ্রিয়তায় নির্বাচনী বৈতরণী পার হতে হবে। সেই দৃষ্টিকোণে সব থেকে এগিয়ে রয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান লায়েব উদ্দিন লাভলু ও উদীয়মান তরুণ নেতা শাহিনুর রহমান পিন্টু।

সরেজমিন ঘুরে ভোটারদের সাথে আলাপকালে জানা যায়, এই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে মূল আলোচনায় রয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক অ্যাডভোকেট লায়েব উদ্দিন লাভলু এবং শাহিনুর রহমান পিন্টু। দুজনের অনুসারীরা নিজ নিজ প্রার্থীর পক্ষে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপকভাবে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

একাধিক ভোটারদের অভিমত, জনপ্রিয়তার দিক থেকে এবার ব্যাপকভাবে আলোচিত নাম শাহিনুর রহমান পিন্টু। তার জনপ্রিয়তা আ’লীগের বড় অংশসহ সকল পর্যায়ের মানুষের মাঝে আছে। পিন্টু ২০১৭ সালের বাঘা পৌরসভা নির্বাচনে বিপুল ভোটে ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছিলেন। পরে প্যানেল মেয়রের দায়িত্ব পেয়ে শুধু পৌর এলাকা নয়, পুরো উপজেলার জনগণের সুখে-দুঃখে পাশে ছিলেন। সেই সুবাদে তিনি ২০১৮ সাল থেকে এলাকায় জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন। তার রয়েছে পারিবারিক ও গোষ্ঠীগত আলাদা ভোট ব্যাংক। উপজেলার বিভিন্ন ধর্মীয়, সামাজিক ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ পারিবারিকভাবে রয়েছে তার ব্যাপক অনুদান। তাই তার অনুসারীদের প্রত্যাশা, আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে, শাহিনুর রহমান পিন্টু বিপুল ভোটে বিজয়ী হবেন।

অপরদিকে বর্তমান চেয়ারম্যান লায়েব উদ্দিন লাভলুর অনুসারীদের ভাবনা, চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে লায়েব উদ্দিন লাভলু সবার সেরা। জনগণ যদি যোগ্যতা দেখে ভোট দেয় তাহলে লায়েব উদ্দিন লাভলু বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়ে আবার উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবেন।

সরেজমিনে ঘুরে জানা যায়, প্রার্থীরা একেকদিন একেক এলাকায় উঠান বৈঠক করে প্রার্থীতার জানান দিচ্ছেন। দিচ্ছেন নানান প্রতিশ্রুতি। নির্বাচনের ক্ষণ এগিয়ে আসার সাথে সাথে সরগরম হয়ে উঠছে প্রচারণার মাঠ। চায়ের দোকান, রেস্টুরেন্টসহ সর্বত্রই চলছে প্রধান দুই হেভিওয়েট চেয়ারম্যান প্রার্থী নিয়ে আলোচনা।

ইসি অফিস সূত্রে জানা যায়, ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৪ ধাপে অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচন অফিস সূত্রে পাওয়া সম্ভাব্য তারিখ হলো, প্রথম ধাপের ভোট হবে ৪ মে, দ্বিতীয় ধাপের ভোট হবে ১১ মে, তৃতীয় ধাপের ভোট হবে ১৮ মে এবং চতুর্থ ধাপের ভোট হবে ২৫ মে। এ উপজেলার ভোট গ্রহণ হবে ২৫ মে চতুর্থ ধাপে। ৭টি ইউনিয়ন ও ২টি পৌরসভা নিয়ে গঠিত বাঘা উপজেলা পরিষদ।

বিষয়:
পরবর্তী খবর

চাঁপাইনবাবগঞ্জে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

চাঁপাইনবাবগঞ্জে দিনভর নানান কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে। রবিবার সকালে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য শুরু হয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান। পরে নেতাকর্মীরা শহরের বঙ্গবন্ধু মঞ্চে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানান।

বিকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সরকারি কলেজে শহীদ মিনার চত্বরে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য মুঃ জিয়াউর রহমানের সভাপতিত্বে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন– জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রুহুল আমিন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল ওদুদ, চাঁপাইনবাবগঞ্জের নারী সংসদ সদস্য জারা জাবীন মাহবুবসহ অনান্যরা।

পরে নেতাকর্মীদের অংশগ্রহণে শহরে বিশাল শোভাযাত্রা বের হয়ে বিভিন্ন সড়ক ঘুরে আবারও অনুষ্ঠান স্থলে এসে শেষ হয়। শেষে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটেন জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনের এ আয়োজনে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা ছাড়াও জেলার অনান্য উপজেলা থেকে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এসে যোগ দেয়। এতে শহর জুড়েই যেন ছিলো উৎসব।

পরবর্তী খবর

‘সবার জন্য শিল্পচর্চা’ স্লোগানে রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্রের যাত্রা শুরু

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার ঝিলিম ইউনিয়নের ফিল্টিপাড়ায় কোল ক্ষুদ্র জাতিসত্তার পরিবারের শিক্ষার্থীদের সম্পূর্ণ বিনাবেতনে শিল্পচর্চা চালু করলো রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্র। শনিবার বিকেলে রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্রের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়।

ঝিলিম ইউপি চেয়ারম্যান লুৎফুল হাসানের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন জেলা সাংস্কৃতিক কর্মকর্তা ফারুকুর রহমান, প্রথম আলো স্টাফ রিপোর্টার আনোয়ার হোসেন দিলু, জেলা স্কাউটসের সহকারী কমিশনার আশরাফুল আম্বিয়া, সম্পাদক গোলাম রশীদ, জজ কোর্টের প্রশাসনিক কর্মকর্তা ভব সুন্দর পাল, কোলদের নারী নেত্রী কল্পনা মুরমু, কবি ইহান অরভিন, আনিফ রুবেদ, ইউপি সদস্য শরিয়ত আলী, সুশান্ত সাহা, ইউপি সচিব মৃণাল কান্তি পাল, চারুশিল্পী সমর সাহা, শিক্ষক ও বাদ্যশিল্পী রাজকুমার দাস, সমাজসেবক স্বপন কুমার ঘোষ প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য দেন রঙের ভাষা আর্ট এন্ড ডিজাইন স্কুলের পরিচালক জগন্নাথ সাহা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন স্কুল শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম।

বক্তারা বলেন, পিছিয়ে পড়া ক্ষুদ্রজাতিসত্তার শিশুদের এগিয়ে নেওয়ার জন্য রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্র কাজ করবে। সামর্থ্য অনুযায়ী এ শিল্প চর্চা কেন্দ্রের পাশে থাকার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন বক্তারা।

এ কেন্দ্রের পরিচালক জগন্নাথ সাহা বলেন, প্রাথমিক পর্যায়ের ১৫ জন ও মাধ্যমিক পর্যাযের ১৫ জন শিক্ষার্থীকে নিয়ে যাত্রা শুরু করবে রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্র। এখানে চিত্রাঙ্কনসহ কুটির শিল্প বিষয়ক শিক্ষা দেওয়া হবে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত