দেশ

দেশ

ঝিনাইদহের সুজন হত্যা মামলার আসামি ইকবাল গ্রেফতার

ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর এলাকায় চাঞ্চল্যকর সুজন হত্যা মামলায় জড়িত পলাতক অন্যতম প্রধান আসামি ইকবালকে রাজধানীর মিরপুর এলাকা হতে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। র‌্যাব-১০ এর গণমাধ্যম শাখা থেকে গ্রেফতারের খবর নিশ্চিত করা হয়েছে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৭:৩০টায় র‌্যাব-১০ এর একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাজধানী ঢাকার মিরপুর থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর থানার মামলা নং-১২, তারিখ-১২/০১/২০২৪ খ্রি.; ধারা-দণ্ডবিধি আইন ১৮৬০ এর ১৪৩/৩৪২/৩২৩/৩২৪/৩২৫/৩২৬/৩০৭/৩৭৯ সংযোজন দণ্ডবিধি-১৮৬০ এর ৩০২; চাঞ্চল্যকর সুজন (৩০) হত্যা মামলায় জড়িত পলাতক এজাহার ভুক্ত আসামি মোঃ ইকবাল হোসেন (২৯), পিতা-মোঃ গোলাম হোসেন, সাং-মির্জাপুর মান্দারতলা, থানা-মহেশপুর, জেলা-ঝিনাইদহকে গ্রেফতার করে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, নিহত মোঃ সুজন (৩০) পেয়ারা ব্যবসার সাথে জড়িত। গত ১১/০১/২০২৪ তারিখে সুজনের সাথে আসামি ইকবালসহ অপরাপর আসামিদের সাথে পেয়ারা ব্যবসার দামদর নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি হয়। উক্ত বিরোধের জের ধরে ঘটনার দিন রাত ১০:১০টার সময় আসামি ইকবাল অন্য আসামিদের সহায়তায় সুজনকে কৌশলে ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর থানার মির্জাপুর মান্দারতলা গ্রামের একটি মেহগনি বাগানে ডেকে নিয়ে যায়। ভিকটিম সুজন মেহগনি বাগানে পৌঁছা মাত্র পূর্ব থেকে ওঁত পেতে থাকা আসামিরা সুজনকে একটি মেহগনি গাছের সাথে বেঁধে ফেলে। এরপর আসামি ইকবালসহ অপরাপর আসামিরা লোহার পাইপ এবং সুচালো বর্ষা দিয়ে ভিকটিম সুজনকে গুরুতর জখম করে এবং এলোপাথারি পিটিয়ে হাত পা ভেঙ্গে ফেলে। এরপর ভিকটিমের পরিবারের লোকজন খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছালে ভিকটিমকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে, যশোরে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভিকটিম মৃত্যুবরণ করেন।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে, গ্রেফতারকৃত আসামি উক্ত হত্যাকাণ্ডের সাথে তার সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করেছে। সে উক্ত হত্যাকাণ্ডের পর থেকে নিজেকে আইনের হাত থেকে বাঁচানোর জন্য ঢাকার মিরপুরসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় আত্মগোপন করে ছিল বলে জানা যায়।

গ্রেফতারকৃত আসামিকে সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

বিষয়:
পরবর্তী খবর

চাঁপাইনবাবগঞ্জে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

চাঁপাইনবাবগঞ্জে দিনভর নানান কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে। রবিবার সকালে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য শুরু হয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান। পরে নেতাকর্মীরা শহরের বঙ্গবন্ধু মঞ্চে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানান।

বিকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সরকারি কলেজে শহীদ মিনার চত্বরে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য মুঃ জিয়াউর রহমানের সভাপতিত্বে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন– জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রুহুল আমিন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল ওদুদ, চাঁপাইনবাবগঞ্জের নারী সংসদ সদস্য জারা জাবীন মাহবুবসহ অনান্যরা।

পরে নেতাকর্মীদের অংশগ্রহণে শহরে বিশাল শোভাযাত্রা বের হয়ে বিভিন্ন সড়ক ঘুরে আবারও অনুষ্ঠান স্থলে এসে শেষ হয়। শেষে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটেন জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনের এ আয়োজনে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা ছাড়াও জেলার অনান্য উপজেলা থেকে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এসে যোগ দেয়। এতে শহর জুড়েই যেন ছিলো উৎসব।

পরবর্তী খবর

‘সবার জন্য শিল্পচর্চা’ স্লোগানে রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্রের যাত্রা শুরু

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার ঝিলিম ইউনিয়নের ফিল্টিপাড়ায় কোল ক্ষুদ্র জাতিসত্তার পরিবারের শিক্ষার্থীদের সম্পূর্ণ বিনাবেতনে শিল্পচর্চা চালু করলো রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্র। শনিবার বিকেলে রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্রের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়।

ঝিলিম ইউপি চেয়ারম্যান লুৎফুল হাসানের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন জেলা সাংস্কৃতিক কর্মকর্তা ফারুকুর রহমান, প্রথম আলো স্টাফ রিপোর্টার আনোয়ার হোসেন দিলু, জেলা স্কাউটসের সহকারী কমিশনার আশরাফুল আম্বিয়া, সম্পাদক গোলাম রশীদ, জজ কোর্টের প্রশাসনিক কর্মকর্তা ভব সুন্দর পাল, কোলদের নারী নেত্রী কল্পনা মুরমু, কবি ইহান অরভিন, আনিফ রুবেদ, ইউপি সদস্য শরিয়ত আলী, সুশান্ত সাহা, ইউপি সচিব মৃণাল কান্তি পাল, চারুশিল্পী সমর সাহা, শিক্ষক ও বাদ্যশিল্পী রাজকুমার দাস, সমাজসেবক স্বপন কুমার ঘোষ প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য দেন রঙের ভাষা আর্ট এন্ড ডিজাইন স্কুলের পরিচালক জগন্নাথ সাহা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন স্কুল শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম।

বক্তারা বলেন, পিছিয়ে পড়া ক্ষুদ্রজাতিসত্তার শিশুদের এগিয়ে নেওয়ার জন্য রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্র কাজ করবে। সামর্থ্য অনুযায়ী এ শিল্প চর্চা কেন্দ্রের পাশে থাকার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন বক্তারা।

এ কেন্দ্রের পরিচালক জগন্নাথ সাহা বলেন, প্রাথমিক পর্যায়ের ১৫ জন ও মাধ্যমিক পর্যাযের ১৫ জন শিক্ষার্থীকে নিয়ে যাত্রা শুরু করবে রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্র। এখানে চিত্রাঙ্কনসহ কুটির শিল্প বিষয়ক শিক্ষা দেওয়া হবে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত