দেশ

দেশ

ভোলার ইলিশের ২ অভয়াশ্রমে ২ মাস মাছ ধরা নিষেধ

ইলিশের টেকসই উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে জেলার মেঘনা ও তেতুঁলিয়া নদীর ১৯০ কিলোমিটার এলাকার দুটি অভয়াশ্রমে আগামীকাল থেকে শুরু হচ্ছে সকল ধরনের মৎস্য শিকারে নিষেধাজ্ঞা। এর মধ্যে মেঘনা নদীর চর ইলিশা থেকে চর পিয়াল পর্যন্ত ৯০ কিলোমিটার এবং ভেদুরিয়া হতে পটুয়াখালীর চর রুস্তম পর্যন্ত তেতুঁলিয়া নদীর ১০০ কিলোমিটার এলাকা রয়েছে। এক মার্চ থেকে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত এ দুই মাস ইলিশের অভয়াশ্রমে ইলিশসহ সব ধরনের মৎস্য শিকার বন্ধ থাকবে।

মৎস্য সুরক্ষা ও সংরক্ষণ আইন অনুযায়ী এ আইন ভঙ্গকারীকে কমপক্ষে এক বছর থেকে সর্বোচ্চ দুই বছর পর্যন্ত সশ্রম কারাদণ্ড অথবা সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা যাবে। এদিকে অভয়াশ্রমে নিষেধাজ্ঞাকালীন মৎস্য শিকার বন্ধে প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছে স্থানীয় মৎস্য বিভাগ। জেলেদের নিয়ে সভা, ব্যানার, লিফলেট বিতরণ, মাইকিং-এর মাধ্যমে সচেতন করা হচ্ছে।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ বলেন, গত অক্টোবর-নভেম্বরের দিকে আমাদের মা ইলিশ নদীতে ডিম ছেড়েছে। সে সব ডিম ফুটে যেসব ইলিশের বাচ্চা রয়েছে তা এখন জাটকা পর্যায়ে। মার্চ এপ্রিল দুই মাস যদি আমরা এসব জাটকা শিকার বন্ধ রাখি, তাহলে তারা পূর্ণ ইলিশে রূপ নেবে। তাই সরকার প্রতিবছর এ দুই মাস মেঘনা ও তেতুলিয়া নদীর অভয়াশ্রমে সব ধরনের মৎস্য শিকার নিষিদ্ধ ঘোষণা করে। এতে করে ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধিসহ অন্যান্য মাছের প্রাচুর্যতা বৃদ্ধি পায়।

সদর উপজেলার ধনিয়া ইউনিয়নের মেঘনা পাড়ের বাসিন্দা মাহবুব মাঝি, সাখাওয়াত মাঝি ও হাসেম আলী বলেন, সরকারের এ সিদ্ধান্ত প্রথম দিকে অনেক জেলে না মানলেও এখন প্রায় সবাই মানছে। কারণ এতে জেলেরাই লাভবান হয়। অপর জেলে ফরিদ হোসেন বলেন, গত কয়েক বছর ধরে মেঘনা নদীতে ইলিশের পাশাপাশি প্রচুর পাঙ্গাস পাওয়া যাচ্ছে। তাই তারাও চান অভয়াশ্রমে সব ধরনের মাছের অবস্থান বৃদ্ধি পাক।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আরও বলেন, গত কয়েক বছর ধরে আমরা দেখতে পাচ্ছি ভোলার নদ-নদীতে ইলিশের পাশাপাশি পাঙ্গাস, পোয়াসহ অন্যান্য মাছের আধিক্য বেড়েছে। যার সুফল সংশ্লিষ্টরা ভোগ করছে। তাই আগামীকাল রাত ১২টার পর থেকে দুটি অভয়াশ্রমে নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়নে দিনে এবং রাতে অভিযান চলবে। অভিযানে মৎস্য বিভাগের পাশাপাশি স্ব স্ব উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ, র‌্যাব, নৌ পুলিশসহ সংশ্লিষ্টরা কাজ করবে।

রাত ১২টা পর থেকেই মেঘনা ও তেতুঁলিয়া নদীতে মৎস্য শিকারে নিষেধাজ্ঞা শুরু হবে। তাই শেষ সময় নদীর কাছাকাছি মাছ শিকারে ব্যস্ত জেলেরা। অনেকেই আবার নৌকা জাল তীরে উঠিয়ে রেখেছেন।

মৎস্য বিভাগ জানায়, গত বছরের এক নভেম্বর থেকে চলতি বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত ৮ মাস জাটকা সংরক্ষণ কার্যক্রম চলমান রয়েছে। জাটকা শিকার থেকে জেলেদের বিরত রাখতে ‘ফেব্রুয়ারি থেকে মে’ এই চার মাস ৮৯হাজার ৬০০ জেলে পরিবারকে ৪০ কেজি করে চাল দিচ্ছে সরকার।

বিষয়:
পরবর্তী খবর

চাঁপাইনবাবগঞ্জে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

চাঁপাইনবাবগঞ্জে দিনভর নানান কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে। রবিবার সকালে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য শুরু হয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান। পরে নেতাকর্মীরা শহরের বঙ্গবন্ধু মঞ্চে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানান।

বিকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সরকারি কলেজে শহীদ মিনার চত্বরে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য মুঃ জিয়াউর রহমানের সভাপতিত্বে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন– জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রুহুল আমিন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল ওদুদ, চাঁপাইনবাবগঞ্জের নারী সংসদ সদস্য জারা জাবীন মাহবুবসহ অনান্যরা।

পরে নেতাকর্মীদের অংশগ্রহণে শহরে বিশাল শোভাযাত্রা বের হয়ে বিভিন্ন সড়ক ঘুরে আবারও অনুষ্ঠান স্থলে এসে শেষ হয়। শেষে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটেন জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনের এ আয়োজনে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা ছাড়াও জেলার অনান্য উপজেলা থেকে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এসে যোগ দেয়। এতে শহর জুড়েই যেন ছিলো উৎসব।

পরবর্তী খবর

‘সবার জন্য শিল্পচর্চা’ স্লোগানে রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্রের যাত্রা শুরু

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার ঝিলিম ইউনিয়নের ফিল্টিপাড়ায় কোল ক্ষুদ্র জাতিসত্তার পরিবারের শিক্ষার্থীদের সম্পূর্ণ বিনাবেতনে শিল্পচর্চা চালু করলো রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্র। শনিবার বিকেলে রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্রের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়।

ঝিলিম ইউপি চেয়ারম্যান লুৎফুল হাসানের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন জেলা সাংস্কৃতিক কর্মকর্তা ফারুকুর রহমান, প্রথম আলো স্টাফ রিপোর্টার আনোয়ার হোসেন দিলু, জেলা স্কাউটসের সহকারী কমিশনার আশরাফুল আম্বিয়া, সম্পাদক গোলাম রশীদ, জজ কোর্টের প্রশাসনিক কর্মকর্তা ভব সুন্দর পাল, কোলদের নারী নেত্রী কল্পনা মুরমু, কবি ইহান অরভিন, আনিফ রুবেদ, ইউপি সদস্য শরিয়ত আলী, সুশান্ত সাহা, ইউপি সচিব মৃণাল কান্তি পাল, চারুশিল্পী সমর সাহা, শিক্ষক ও বাদ্যশিল্পী রাজকুমার দাস, সমাজসেবক স্বপন কুমার ঘোষ প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য দেন রঙের ভাষা আর্ট এন্ড ডিজাইন স্কুলের পরিচালক জগন্নাথ সাহা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন স্কুল শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম।

বক্তারা বলেন, পিছিয়ে পড়া ক্ষুদ্রজাতিসত্তার শিশুদের এগিয়ে নেওয়ার জন্য রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্র কাজ করবে। সামর্থ্য অনুযায়ী এ শিল্প চর্চা কেন্দ্রের পাশে থাকার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন বক্তারা।

এ কেন্দ্রের পরিচালক জগন্নাথ সাহা বলেন, প্রাথমিক পর্যায়ের ১৫ জন ও মাধ্যমিক পর্যাযের ১৫ জন শিক্ষার্থীকে নিয়ে যাত্রা শুরু করবে রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্র। এখানে চিত্রাঙ্কনসহ কুটির শিল্প বিষয়ক শিক্ষা দেওয়া হবে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত