শিক্ষা

শিক্ষা

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ২ দিনের বিজ্ঞান মেলা

চাঁপাইনবাবগঞ্জের নামোশংকরবাটী উচ্চ বিদ্যালয়ে শুরু হয়েছে দুইদিনের বিজ্ঞান মেলা। মঙ্গলবার সকালে মেলার উদ্বোধন করেন জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুর রশিদ।

নামোশংকরবাটী উচ্চ বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি দররুল হোদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন– দেবীনগর দ্বি-মুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও জেলা শিক্ষক-কর্মচারী কল্যাণ সমিতির সভাপতি আব্দুল আজিজ, চরমোহনপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম, নামোশংকরবাটী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আসলাম কবীরসহ অনান্যরা।

নামোশংকরবাটী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আসলাম কবীর জানান, শিক্ষার্থীদের মধ্যে উদ্ভাবনী শক্তি বাড়াতেই এ বিজ্ঞান মেলা আয়োজন করা হয়েছে। এতে শিক্ষার্থীদের ৩৬টি গ্রুপ তাদের উদ্ভাবনী প্রকল্প উপস্থাপন করে।

পরবর্তী খবর

কোটা বাতিলের দাবিতে ববির রাস্তায় শিক্ষার্থীরা

প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকুরিতে কোটা পুনর্বহাল নিয়ে হাইকোর্টের আদেশের প্রেক্ষিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (ববি) শিক্ষার্থীরা।

রবিবার (৯ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে সকাল ১১টা থেকে এক ঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল করেন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এসময় দেখা যায় নুরুজ্জামান মিরাজ (নূর) এর পিঠে লেখা ছিলো কোটা নিপাত যাক, বৈষম্য দুর কর। এ যেন স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনের প্রতিচ্ছবি বলছেন তারা।

বাংলা বিভাগের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী নূর জানান, স্বৈরচারী বিরোধী আন্দোলনে যেমন নুর রাস্তায় নেমে পিঠে লিখেছিলো স্বৈরাচার নিপাত যাক, ঠিক তেমনি বৈষম্য দূর করে কোটা নিপাত করা হবে। তিনি জানান, বৈষম্য দুর করার জন্যে ’৭১-এর মুক্তিযুদ্ধ হয়েছিলো। আবার সেই বৈষম্য শুরু হয়ে গেছে। কোটা বহাল রেখে দেশে মেধাবী শূন্য করা হচ্ছে।

এছাড়া বক্তব্য রাখেন ইংরেজি বিভাগের অনিকা সরকার, বাংলা বিভাগের ইউসুফ, আইন বিভাগের মাইনুল ইসলাম, অর্থনীতি বিভাগের ভূমিকা সরকার ও আইন বিভাগের ইমন আলীসহ অন্যান্য শিক্ষার্থীরা।

বিক্ষোভ শেষে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা বলেন, কোনো বৈষম্যহীন রাষ্ট্রে ৫৬ শতাংশ কোটা থাকতে পারে না। তীব্র আন্দোলনের মুখে সরকার যেখানে কোটা পদ্ধতি বাতিল করেছিলো হাইকোর্ট কেন সেই কোটাকে আবার পুনর্বহাল করলো আমরা জানি না। সরকারের সিদ্ধান্তকে হাইকোর্ট বাতিল করেছে। আমরা চাইবো সরকারের পক্ষ থেকে যেন আপিল বিভাগে আপিল করা হয়। নয়তো আন্দোলন চলবে। আমরা রাজপথ ছাড়বো না।

তারা আরও বলেন, ২০১৮ সালের রক্তের দাগ আজও শুকায় নাই। টিয়ারশেলের দাগ আজও শুকায় নাই। আমাদের সেই সংগ্রাম ব্যর্থ হওয়ার পথে। আমাদের উপর হাইকোর্ট যে রায় চাপিয়ে দিয়েছে আমরা সেই রায় মানি না। যারা কোটাধারী মেধাবী পরিচয় দিতে চান, তাদেরকে বলতে চাই, এই পরিচয় খুবই লজ্জার।

পরবর্তী খবর

নোবিপ্রবিতে রয়্যাল ইকোনমিক্স ক্লাবের নতুন কমিটি গঠন

সভাপতি রিয়াজুল ও সাধারণ সম্পাদক তাসমিয়া

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) তে অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থীদের নিয়ে ‘রয়্যাল ইকোনমিক্স ক্লাব (আরইসি)-এর নতুন কমিটির ঘোষণা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৩ ই মে) সকাল ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মোহাম্মদ ইদ্রিস অডিটোরিয়াম ভবনের আইকিউএসি সেমিনার কক্ষে সংগঠনটির বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অর্থনীতি বিভাগের চেয়ারম্যান সহকারী অধ্যাপক মুহাইমিনুল ইসলাম সেলিম।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও সংগঠনের উপদেষ্টা সাদ্দাম হোসেন রাজু এবং বিভাগের প্রভাষক আতিক হাসান। এসময়ে আরইসি’র সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

নোবিপ্রবির অর্থনীতি বিভাগের চেয়ারম্যান সহকারী অধ্যাপক মুহাইমিনুল ইসলাম সেলিম প্রধান অতিথি হিসেবে এসময়ে নতুন কার্যনির্বাহী কমিটির ঘোষণা করেন। নতুন কার্যনির্বাহী কমিটিতে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে নোবিপ্রবির অর্থনীতি বিভাগের ২০১৯-২০ সেশনের শিক্ষার্থী যথাক্রমে রিয়াজুল কবির তালুকদার ও তাসমিয়া বিনতে সাদেক।

এছাড়াও সহ সভাপতি হিসেবে ফারজানা জেসমিন কলি,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে স্মৃজিতা চাকমা, কোষাধ্যক্ষ পদে আজমির হোসেন, অর্গানাইজিং সেক্রেটারি শামস উদ্দিন চৌধুরী, ডেপুটি মাহফুজুল কবির, আফসানা জামান সুইটি, এক্সিকিউটিভ হিসেবে হাফিজুর রহমান, আবেদুন নাহার ভূইয়া, আব্দুল্লাহ আল মামুন, চন্দন দেবনাথ নির্বাচিত হন।

তাছাড়া পাবলিক রিলেশন সেক্রেটারি হিসেবে আসিফ ইমতিয়াজ, ডেপুটি সায়েমা সুলতানা এবং এক্সিকিউটিভ পদে রিয়াদ সরকার, জান্নাত অহনা, স্বপ্নীল পাল তূর্য্য। পাশাপাশি রিসার্স উইং সেক্রেটারি হিসেবে মারজাহান বেগম ঝুমুর, ডেপুটি কামরুন নাহার, মো. ফাহিম, মোস্তাইন হৃদয়; এক্সিকিউটিভ পদে মোহাম্মদ তারেক হাসান, রুকাইয়া তাসনিম ও ফারিহা বিনতে ইসলাম নির্বাচিত হন।

এছাড়াও ডিজাইন ও পাবলিকেশন সেক্রেটারি হিসেবে নুশেরা নাজরিন জুঁই ওডেপুটি আব্দুল্লাহ আল কাইয়ুম এবং এক্সিকিউটিভ পদে মো. শিহাব হোসেন, মো. তানভির ইশতিয়াক ও মৃত্তিকা দাস নির্বাচিত হন। পাশাপাশি ডিবেট উইং সেক্রেটারি পদে জান্নাতুল ফেরদৌস ইরা, ডেপুটি আইনুল হাসনাত রাজু এবং এক্সিকিউটিভ পদে আবরার হোসেন আবেদ, সুব্রত দে ও নাইমা ইসলাম নির্বাচিত হয়েছেন।

তাছাড়া কালচারাল উইং সেক্রেটারি হিসেবে নুর আসমা মিম, ডেপুটি সেক্রেটারি জান্নাতুল নাঈম লিজা এবং এক্সিকিউটিভ পদে ফাইজা হাসান তিনা ও সামিয়া আফরিন স্বর্না নির্বাচিত হয়েছেন।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত