দেশ

দেশ

বিচারককে জুতা নিক্ষেপ করলেন আসামি

চট্টগ্রামের একটি আদালতের কাঠগড়া থেকে বিচারককে জুতা নিক্ষেপ করেছে এক আসামি। মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে এই চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেছে। 

বিষয়টি নিশ্চিত করে ওই ট্রাইব্যুনালের পাবলিক প্রসিকিউটর মেজবাহ উদ্দিন দেশ রুপান্তরকে জানান, দুপুর ১২টার দিকে একটি মামলার শুনানির জন্য এজলাসে বসেন বিচারক মোহাম্মদ জহিরুল কবীর। 

এ সময় আসামির গারদে (কাঠগড়া) উপস্থিত থাকা আসামি মনির খান বিচারকের উদ্দেশ্যে পর পর দুটি জুতা নিক্ষেপ করেন। জুতা বিচারকের গায়ে পড়েছে বলেও জানান পিপি মিজবাহ। 

ঘটনার আকস্মিকতায় হতভম্ব হয়ে যান বিচারক। এ সময় আদালতে পিপি মেজবাহ উদ্দিনসহ একাধিক আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন বলে জানা গেছে। 

এদিকে এ ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে নগরের কোতায়ালি থানায় একটি মামলা দায়ের করবেন বলে জানিয়েছেন পিপি মেজবাহ উদ্দিন। 

আদালত সূত্র জানা যায়, বিচারককে জুতা নিক্ষেপকারী আসামির নাম মো. মনির খান ওরফে মাইকেল (৩২)। তিনি ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার নাসির নগর থানার গোকর্ন গ্রামের গোলাপ খাঁ’র ছেলে।  

২০২১ সালের ২২ জানুয়ারি ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন লঙ্ঘন করে দুটি ভিডিও লাইভ শেয়ার করেন নাসির। ওই ভিডিওতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, তৎকালীন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ ও বাংলাদেশ পুলিশসহ রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নিয়ে কটুক্তি করার পাশাপাশি তাদের অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। 

পরে এ ঘটনায় তাকে আটক করে তার বিরুদ্ধে ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার নাসির নগর থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন নাসির নগর থানার এসআই তপু সাহা। তদন্ত  শেষে ২০২১ সালের ২০ জুন মনির খান ওরফে মাইকেলকে অভিযুক্ত করে সাইবার ট্রাইব্যুনালে চার্জশিট জমা দেন নাসির নগর থানার ওসি (তদন্ত) আ স ম অতিকুর রহমান। 

এদিকে এ ঘটনায় চরম ক্ষুব্ধ হন রাষ্ট্রপক্ষের ওই মামলা পরিচালনাকারী পিপি মেজবাহ উদ্দিন। তিনি ঘটনা সংঘটিত হওয়ার পর পর মামলা পরিচালনার দায় থেকে অব্যাহতি চেয়ে সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ জহিরুল কবীরের কাছে তাৎক্ষণিক ক্ষমা প্রার্থনা করেন

বিষয়:
পরবর্তী খবর

চাঁপাইনবাবগঞ্জে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

চাঁপাইনবাবগঞ্জে দিনভর নানান কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে। রবিবার সকালে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য শুরু হয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান। পরে নেতাকর্মীরা শহরের বঙ্গবন্ধু মঞ্চে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানান।

বিকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সরকারি কলেজে শহীদ মিনার চত্বরে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য মুঃ জিয়াউর রহমানের সভাপতিত্বে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন– জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রুহুল আমিন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল ওদুদ, চাঁপাইনবাবগঞ্জের নারী সংসদ সদস্য জারা জাবীন মাহবুবসহ অনান্যরা।

পরে নেতাকর্মীদের অংশগ্রহণে শহরে বিশাল শোভাযাত্রা বের হয়ে বিভিন্ন সড়ক ঘুরে আবারও অনুষ্ঠান স্থলে এসে শেষ হয়। শেষে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটেন জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনের এ আয়োজনে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা ছাড়াও জেলার অনান্য উপজেলা থেকে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এসে যোগ দেয়। এতে শহর জুড়েই যেন ছিলো উৎসব।

পরবর্তী খবর

‘সবার জন্য শিল্পচর্চা’ স্লোগানে রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্রের যাত্রা শুরু

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার ঝিলিম ইউনিয়নের ফিল্টিপাড়ায় কোল ক্ষুদ্র জাতিসত্তার পরিবারের শিক্ষার্থীদের সম্পূর্ণ বিনাবেতনে শিল্পচর্চা চালু করলো রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্র। শনিবার বিকেলে রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্রের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়।

ঝিলিম ইউপি চেয়ারম্যান লুৎফুল হাসানের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন জেলা সাংস্কৃতিক কর্মকর্তা ফারুকুর রহমান, প্রথম আলো স্টাফ রিপোর্টার আনোয়ার হোসেন দিলু, জেলা স্কাউটসের সহকারী কমিশনার আশরাফুল আম্বিয়া, সম্পাদক গোলাম রশীদ, জজ কোর্টের প্রশাসনিক কর্মকর্তা ভব সুন্দর পাল, কোলদের নারী নেত্রী কল্পনা মুরমু, কবি ইহান অরভিন, আনিফ রুবেদ, ইউপি সদস্য শরিয়ত আলী, সুশান্ত সাহা, ইউপি সচিব মৃণাল কান্তি পাল, চারুশিল্পী সমর সাহা, শিক্ষক ও বাদ্যশিল্পী রাজকুমার দাস, সমাজসেবক স্বপন কুমার ঘোষ প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য দেন রঙের ভাষা আর্ট এন্ড ডিজাইন স্কুলের পরিচালক জগন্নাথ সাহা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন স্কুল শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম।

বক্তারা বলেন, পিছিয়ে পড়া ক্ষুদ্রজাতিসত্তার শিশুদের এগিয়ে নেওয়ার জন্য রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্র কাজ করবে। সামর্থ্য অনুযায়ী এ শিল্প চর্চা কেন্দ্রের পাশে থাকার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন বক্তারা।

এ কেন্দ্রের পরিচালক জগন্নাথ সাহা বলেন, প্রাথমিক পর্যায়ের ১৫ জন ও মাধ্যমিক পর্যাযের ১৫ জন শিক্ষার্থীকে নিয়ে যাত্রা শুরু করবে রঙের ভাষা শিল্পচর্চা কেন্দ্র। এখানে চিত্রাঙ্কনসহ কুটির শিল্প বিষয়ক শিক্ষা দেওয়া হবে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত