অর্থ ও বাণিজ্য, নির্বাচিত

অর্থ ও বাণিজ্য, নির্বাচিত

ফাউন্ডার্স কমিউনিটি ক্লাবের অফিস উদ্বোধন হলো উত্তরায়

রাজধানীর উত্তরাতে উদ্বোধন হলো ফাউন্ডার্স কমিউনিটি ক্লাবের অফিস। আজ (বুধবার, ৩১ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় উত্তরার ৯ নং এভিনিউ এর ১৫/ডি সেক্টরের ডেরা সেন্টারে ক্লাবের অফিস উদ্বোধন করা হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে ক্লাব প্রেসিডেন্ট এবং যান্ত্রিক-এর কো ফাউন্ডার ও চিফ অপারেটিং অফিসার বিপ্লব চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, আমাদের যাত্রা শুরুর পর সরকারি নিবন্ধন পাওয়া ছিলো আমাদের স্বপ্নের প্রথম যাত্রা। আর আজকের এই অফিস উদ্বোধন আমাদের স্বপ্নের ২য় যাত্রা।

তিনি আরও বলেন, আমরা নিকট আগামীতে একটা নিজস্ব জায়গা নিবো, নিজস্ব ভবনে আমাদের নিজস্ব অফিস হবে। সেখানে ক্লাব মেম্বারদের ব্যবসায়িক কার্যক্রম বিষয়ক আলোচনার পাশাপাশি নেটওর্য়াকিং, বিনোদন ও খেলাধুলার আধুনিক সকল সুযোগ সুবিধার ব্যবস্থা থাকবে।

উপস্থিত সকল ফাউন্ডার্সদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ক্লাবের ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং আমার পে লি.-এর ম্যানাজিং ডিরেক্টর ইশতেয়াক সারোয়ার। তিনি বলেন, এই ক্লাবের উদ্যোগে ফাউন্ডার্সদের লিগ্যাল এইড, ফান্ড রেইজিং, নেটওয়াকিংসহ টোটাল একটা ইকো সিস্টেম ডেভলপ করা হবে। সেই সাথে এখানে সকলের পরিবারিক মিলন মেলার কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠবে।

দেশীয় শীর্ষস্থানীয় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান চালডালের সহপ্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা জিয়া আশরাফ বলেন, এই ক্লাবে বিজনেস প্রাকটিসের পাশাপাশি সোশ্যাল প্রাকটিসের মাধ্যমে সদস্যদের বিজনেস গ্রোথ নিশ্চিত করা হবে।

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্যে সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটি ও যাচাই ডট কম-এর প্রতিষ্ঠাতা ইঞ্জি. আবদুল আজিজ ঘোষণা দেন, ক্লাবের স্থায়ী অফিসের বিষয়ে তিনি তাঁর সাধ্যমত সার্বিক সহযোগিতা করবেন।

অন্যান্য উপস্থিতির মধ্য থেকে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন ব্যাবোলিন গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা মোঃ লিয়াকত হোসাইন, সেবা এক্সওয়াইজেড-এর সহপ্রতিষ্ঠাতা মোহাম্মদ ইলমুল হক সজীব, জেসিআই ঢাকা ইমিনেন্টের প্রেসিডেন্ট মোঃ ইমরান কাদীর এবং নিজল ক্রিয়েটিভ-এর চিফ ফটোগ্রাফার ও সিইও আবু সুফিয়ান নিলাভ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ঢাকা ১৮ আসনের সংসদ সদস্য জনাব খসরু চৌধুরীর পক্ষে শুভেচ্ছা বিনিময় ও বক্তব্য রাখেন তাঁর ছোট ভাই ডাঃ সানজিত।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ক্লাব সেক্রেটারি এবং লিভিংটেক্স-এর সিইও জাকের জাহান শুভ্র।

উল্লেখ্য, প্রযুক্তি জগতের স্টার্টআপ উদ্যোক্তাদের সামাজিক, শারীরিক, মানসিক এবং মানসিক স্বাস্থ্য এবং সুস্থতার লক্ষ্যে ২০২৩ সালের ২রা মার্চ ফাউন্ডার্স কমিউনিটি ক্লাব লিমিটেড গঠিত হয়।

ক্লাব কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনের জন্য ক্লাবের মাধ্যমে স্টার্টআপ এবং আইটি সেক্টরের স্মার্ট এন্টারপ্রাইজগুলিতে সম্মিলিতভাবে অবদান রাখতে চান তারা। পাশাপাশি তরুণ-তরুণীদের কারিগরি প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে দেশ ও জাতিকে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের জন্য প্রস্তুত করতে এবং উদ্যোক্তাদের মধ্যে আন্তঃসংযোগ ও সম্পর্কের বিকাশ এবং একে অপরের ব্যবসা বৃদ্ধিতে সহায়তা করায় ভূমিকা রাখা এই ক্লাবের লক্ষ্য।

বিষয়:
পরবর্তী খবর

উদ্যোক্তাদের ‘দক্ষতা বৃদ্ধি প্রশিক্ষণ’ দিচ্ছে এন্টারপ্রাইজ বাংলাদেশ

এন্টারপ্রাইজ বাংলাদেশের আয়োজনে রাজধানীর টিকাটুলীতে অবস্থিত এফবিসিসিআই ইনোভেশন অ্যান্ড রিসার্চ সেন্টার মিলনায়তনে শুরু হয়েছে দুই দিন ব্যাপী ক্ষুদ্র ও মাঝারী উদ্যোক্তাদের জন্যে দক্ষতা বৃদ্ধি এবং ঋণ প্রস্তুতি সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ।

বুধবার (১২ জুন) সকালে শুরু হওয়া এই প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে প্রথম ব্যাচে ২৫ জন উদ্যোক্তাকে সুযোগ দেওয়া হয়েছে। প্রথম দিন উদ্বোধনী পর্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআই ইনোভেশন অ্যান্ড রিসার্চ সেন্টারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বিকর্ণ কুমার ঘোষ।

প্রধান অতিথি তাঁর উদ্বোধনী বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশের ৩০ লক্ষ শহীদের রক্তের ঋণ শোধ করতে হলে তাঁদের স্বপ্নটাকে বাস্তবায়নে কাজ করতে হবে। তাঁদের স্বপ্ন ছিল একটা সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ। সেই লক্ষ্যে অসম্ভবকে সম্ভব করার সাহসীকতা নিয়ে কাজ করতে হবে। উদ্যোক্তাদের সেই সাহস আছে। তাদের সাহস, আত্মবিশ্বাস এবং প্রস্তুতি পারে দেশের অর্থনীতিকে এগিয়ে নিতে। তিনি বলেন, যারা উদ্যোক্তা তারা ঝুঁকি নিতে জানে। ঝুঁকি নেওয়া ছাড়া বড় পরিবর্তন সম্ভব না। তাই চাকরিজীবীদের দিয়ে যে অগ্রগতি সম্ভব না, উদ্যোক্তাদের দিয়ে তা সম্ভব। বিকর্ণ কুমার ঘোষ উদ্যোক্তাদের যেকোনো প্রয়োজনে পাশে থাকার প্রত্যয় ঘোষণা দেন।

প্রথম দিনের প্রশিক্ষণ কার্যক্রম পরিচালনা করেন নিজের বলার মতো একটা গল্প ফাউন্ডেশনের মডারেটর ও ঢাকা জেলা এম্বাসাডর হোসাইন আল মামুন এবং টার্টেল ভেঞ্চারের মেহেনাজ জামান।

আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ক্ষুদ্র ও মাঝারী উদ্যোক্তাদের জন্যে দক্ষতা বৃদ্ধি এবং ঋণ প্রস্তুতি সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ কার্যক্রম তারা নিয়মিত পরিচালনা করবেন। প্রথম ব্যাচে এবার বাছাইকৃত পঁচিশজন উদ্যোক্তাকে সুযোগ দিতে পেরেছেন। ভবিষ্যতে আরও বেশি সংখ্যক উদ্যোক্তাকে এই প্রশিক্ষণের আওতায় আনার পরিকল্পনা রয়েছে। তাদের পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়েছে, উদ্যোক্তাদের জন্য বিনিয়োগ এবং লোন সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলোকে সহজ করতে তারা কাজ করছেন।

এন্টারপ্রাইজ বাংলাদেশের এই আয়োজনে পার্টনার হিসেবে রয়েছে নিজের বলার মতো একটা গল্প ফাউন্ডেশন, টার্টেল ভেঞ্চার এবং দ্রুত লোন। আগামীকাল প্রথম ব্যাচের এই প্রশিক্ষণ শেষ হবে।

পরবর্তী খবর

১৮০৫ কেজি আম নিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ ছাড়ল ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন

আমের রাজধানী চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে চালু হলো আম পরিবহনের বিশেষ ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন। সোমবার সন্ধ্যা ৬টায় প্রায় ১৮০৫ কেজি আম নিয়ে ছেড়ে যায় ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন। কম খরচে আম পরিবহনের বিষয়টি মাথায় রেখে বিগত বছরগুলোর ধারাবাহিকতায় ৫ম বারের মত আম পরিবহনের বিশেষ এ ট্রেন চালু করছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেনে চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ঢাকা প্রতি কেজি আম পরিবহনে খরচ হবে ১ টাকা ৪৮ পয়সা।

সোমবার বিকাল ৫টায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেল স্টেশনে ম্যাংগো ও ক্যাটেল ট্রেনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সংসদ সদস্য আব্দুল ওদুদ। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাছমিনা খাতুন, বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের প্রধান প্রকৌশলী আসাদুল হক, বিভাগীয় রেলওয়ে ব্যবস্থাপক শাহ সুফী নূর মোহাম্মদসহ অনান্যরা।

এর আগে সোমবার বিকাল ৪টায় রহনপুর স্টেশন থেকে ১০২০ কেজি আম নিয়ে যাত্রা শুরু করে ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন। এরপর নাচোল, আমনুরা জংশন হয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেল স্টেশনে আরো ৭৮৫ কেজি উঠানো হয়। পরে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন শেষে আম নিয়ে সন্ধ্যা ৬টায় রাজশাহীর উদ্দেশ্য ছেড়ে যায় ট্রেনটি।এরপর রাজশাহী, সরদহ রোড, আনাড়ী, আব্দুল্লাহপুর, ইশ্বরদী,পোড়াদহ, রাজবাড়ি, ফরিদপুর, ভাঙ্গা হয়ে পদ্মা সেতুর উপর দিয়ে ঢাকায় পৌঁছাবে আমের এ বিশেষ ট্রেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেল স্টেশনের স্টেশন মাস্টার মোহাম্মদ ওবাইদুল্লাহ জানান, এ ট্রেনে আম ছাড়াও শাকসবজি, ডিমসহ অনান্য কৃষি পণ্য পরিবহন করা যাবে। তিনি আরও জানান, আজ উদ্বোধন করা হলেও আগামী ১২ তারিখ থেকে তিনদিন ক্যাটেল স্পেশাল ট্রেন চলাচল করবে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত