রাজনীতি

রাজনীতি

অফিসিয়ালি জাতীয় পার্টি বিরোধী দল : জিএম কাদের

সংসদে অফিসিয়ালি বিরোধী দল জাতীয় পার্টি বলে দাবি করেছে দলটির চেয়ারম্যান জিএম কাদের বলেছেন, যারা নির্বাচনে জয়লাভ করেছেন তাদের মধ্যে আওয়ামী লীগের পরে শুধু জাতীয় পার্টিই আছে। বাকি যারা স্বতন্ত্র তারা সবাই আওয়ামী লীগ সমর্থিত অথবা সরাসরি আওয়ামী লীগের সদস্য। কাজেই তাদের বিরোধী দল হিসেবে থাকার কোনো সুযোগ নেই। সেখানে আনুষ্ঠানিকভাবে এবং অফিসিয়ালি আমরাই (জাতীয় পার্টি) বিরোধী দল হওয়ার কথা।

সোমবার (২২ জানুয়ারি) রংপুরে নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলার সময় এ মন্তব্য করেন জিএম কাদের।

এর আগে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরও একইরকম মন্তব্য করে বলেছিলেন, সংসদে বিরোধী দলের আসনে জাতীয় পার্টিই বসবে, স্বতন্ত্র সংসদ সদস্যেরা স্বতন্ত্রই।

ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকের এই বক্তব্য আমরা স্বাভাবিক মনে করছি। এমন হওয়ারই কথা ছিল। তবে এখন পর্যন্ত আনুষ্ঠানিক কোনো ঘোষণা আমরা পাইনি। আওয়ামী লীগ থেকে যা বলা হয়েছে, তা নিয়মের কথাই বলা হয়েছে। সংসদে বিরোধী দলে থাকা সব থেকে বেশি আসন যাদের তারাই বিরোধী দল হওয়া কথা।

জিএম কাদের বলেন, গত সংসদেও আমরা বিরোধী দলের ভূমিকা পালন করছি। জনগণের আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছি। আমরা জনগণের পক্ষে কথা বলেছি। সরকারের সমালোচনা করেছি, যেখানে দরকার। সরকারের দুর্নীতি, ক্ষমতার অপব্যবহার, বিভিন্ন প্রকার অনিয়ম, দলীয়করণ ইত্যাদি কথা আমরা সংসদে বিভিন্ন সময় তুলে ধরেছি। যেসব আইন এসেছে, তাতেও ভূমিকা রেখেছি। সরকারের সমালোচনা যেভাবে করা দরকার, সেভাবে করেছি। যেখানে পরিবর্তন দরকার সেগুলো তুলে ধরেছি এই ভূমিকা। আগামীতেও রাখবো বলে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

বিষয়:
পরবর্তী খবর

জিয়ার জন্ম না হলে বাংলাদেশের জন্ম হত না : রিজভী

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী মন্তব্য করেছেন, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়ার জন্ম না হলে বাংলাদেশের জন্ম হত না, বাংলাদেশ স্বাধীন হত না

জিয়াউর রহমানের ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিক উপলক্ষে ৩মে সোমবার বিকাল ৪টায় বিডি হলে যশোর জেলা বিএনপির উদ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা বিএনপির আহ্বায়ক অধ্যাপিকা নার্গিস বেগমের সভাপতিত্বে ও সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেন খোকনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী। এসময় তিনি বলেন, দেশের এই ক্রান্তিকালে আজ বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী পালন করতে হচ্ছে, এই জিয়ার জন্ম না হলে বাংলাদেশের জন্ম হত না, বাংলাদেশ স্বাধীন হত না। অথচ সেই স্বাধীনদেশে আমরা স্বাধীনভাবে চলতে পারি না, স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে পারি না। এই দেশে আমরা স্বাভাবিক মৃত্যুর আশা করতে পারি না। তাই সময় এসেছে আরও একবার যুদ্ধ করে স্বৈরাচারী শেখ হাসিনার পতন ত্বরান্বিত করতে হবে এবং আগামীর রাষ্ট্র নায়ক, আমাদের অহংকার দেশনায়ক তারেক রহমান হাসিনা পতনের যে কর্মসূচি দেবেন তা আমরা রাজপথে পালন করব ও সফল করব।

এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ‍্য ইসলাম অমিত, এসময় অন‍্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন ডা. রফিকুল ইসলাম, বাবু জয়ন্ত কুমার কুন্ডু, বাবু অমলেন্দু দাস অপু, জাহানারা সিদ্দিকী, জেলা বিএনপির সদস্য সচিব অ্যাড. সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু ও মফিকুল হাসান তৃপ্তি সাবেক সাংসদ, মিজানুর রহমান খান, আবুল হোসেন আজাদ, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাহী সদস্য সাবিরা নাজমুল।

আরও উপস্থিত ছিলেন শার্শা উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক খাইরুজ্জান মধু, ঝিকরগাছা উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক মোর্তজা এলাহী টিপু, সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক আবুল হাসান জহির, কেন্দ্রীয় যুবদলের সহ সভাপতি নুরুজ্জামান লিটন, জেলা যুবদলের সভাপতি এম তমাল আহমেদ, সম্পাদক আনসারুল হক রানা, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার রবিউল ইসলাম, সম্পাদক মোস্তফা আমির ফয়সাল, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি রাজিদুর রহমান সাগর, সম্পাদক কামরুজ্জামান বাপ্পীসহ বিএনপির অংগ সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

পরবর্তী খবর

শার্শায় জিয়াউর রহমানের ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

যশোরের শার্শা উপজেলা কৃষক দলের উদ্যোগে সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৪৩ তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩০শে মে) বিকাল ৪টার সময় উপজেলা কৃষক দলের অস্থায়ী কার্য‍ালয় নাভারনে অনুষ্ঠিত সভায় শার্শা ইউনিয়ন কৃষক দলের সভাপতি বকুল হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা কৃষক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক ও উপজেলা কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন। এসময় তিনি বলে, যে নেতার জন্ম না হলে এদেশ স্বাধীন হত না, সেই নেতার স্বাধীন বাংলাদেশে আজ আমরা স্বাধীনভাবে চলতে পারি না। সেই মহান নেতা স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের স্বাধীন দেশে আজ আমরা পরাধীন।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন নিজামপুর ইউনিয়ন কৃষক দলের সভাপতি আবু জাফর, সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, বিএনপি নেতা ইব্রাহিম খলিল, উলাশী ইউনিয়ন কৃষক দলের সম্পাদক জামাল হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক মিন্টু হোসেন, স্বেচ্ছাসেবক দলের ফারুক হোসেন, শ্রমিক দলের নাজমুল হোসেন, নুর হোসেন প্রমুখ।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত